নোয়াখালীর বার্তা ডটকমঃ অসুস্থ হয়ে চট্রগ্রাম থেকে আসার দুদিন পর করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন হাতিয়া উপজেলার জয়নাল আবদিন নামে ৬০ বছর বয়সের এক বৃদ্ধ।
কনিবার (১৬ মে) ভোরে নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার উপজেলা সদরে অবস্থিত আইসোলেসন ইউনিটে ( মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে) তার মৃত্যু হয়। এদিকে এলাকার লোকজনের বাধার মূখে প্রশাসনের সহযোগীতায় লাশ দাফন করা হয়।
জানা যায়, নিহত জয়নাল আবেদিন চট্রগ্রামে একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকুরী করত। সে অসুস্থ হয়ে গেলে তার সন্তানেরা তাকে গ্রামের বাড়ী হাতিয়ার চরকিং ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডে নিয়ে আসে। তার অসুস্থতার সংবাদ পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুইজন ডাক্তার শুক্রবার বিকালে তার বাড়ীতে যান করোনা উপসর্গ আছে কি না দেখতে। কিন্তু রোগীর ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া হয়েছে দেখে তাৎখনিক কিছু চিকিৎসা দেন তারা। রোগীর অবস্থা খুবিই খারাপ হওয়ায় তাকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে অক্সিজেন ও দেওয়ায় হয়। রাতে তার অবস্থা আরো খারাপ হওয়ায় তাকে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তী করা হয়। শনিবার ভোরে সে মারা যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাক্তার নিজাম উদ্দিন মিজান জানান, রোগীর মধ্যে কিছু উপসর্গ থাকায় নিহত জয়নাল আবেদিন ও তার দুই ছেলের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিধি মেনে ইসলামী ফাউন্ডেশনের লোকজন তার লাশ দাপনের ব্যবস্থা করেন।

এব্যাপরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: রেজাউল করিম জানান, লাশ দাফনে এলাকার লোকজন একটু বাধা দেয়। পরে আমাদের হস্তক্ষেপে লাশ দাপন করা হয়।