অবশেষে গ্রেফতার হয়েছেন ইসলাম, মহানবী, মসজিদের ঈমাম ও ইসলামের নানা বিষয় কুরুচিপূর্ণ ও আপত্তিকর বক্তব্য প্রদানকারী সেই বয়াতি শরিয়ত সরকার (৩৫)। শনিবার (১১ জানুয়ারি) ভোর ৪ টার দিকে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানাধীন বাশিল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মো. মিজানুর রহমান।

উল্লেখ্য, উপজেলার জামুর্কী ইউনিয়নের আগ ধল্যা গ্রামের পবন মিয়ার ছেলে বয়াতী শরিয়ত সরকার গত ২৪ ডিসেম্বর ঢাকা জেলার ধামরাই থানাধীন রোহাট্রেক এলাকায় পালা গানের একটি অনুষ্ঠানে ইসলাম, মহানবী, মসজিদের ঈমাম ও ইসলামের নানা বিষয়ে আপত্তিকর বক্তব্য রাখেন বলে অভিযোগ উঠে। সেখানে তিনি দাবি করেন, গান বাজনা হারাম কোরআনে কোথাও এই কথা বলা হয় নাই। কেউ যদি হারাম প্রমাণ দিতে পারে তবে সে ৫০ লক্ষ টাকা দিবে বলে চ্যালেঞ্জ করেন। যারা নামাজ পড়ে সেজদা দিয়া কপালে কালো দাগ করে, তাদের কপাল থেকে ১১৩ টি কিরা বের হয় বলে তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন। নবী গান শোনা ঘুমাতেন না উল্লেখ করে আরও বিভিন্ন আপত্তিকর বক্তব্য রাখেন। যা পরবর্তীতে ইউটিউবের কল্যাণে ভাইরাল হয়ে গেলে তাকে গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে ফুঁসে উঠে স্থানীয় মুসলিম জনতা। মানববন্ধন, সমাবেশও অনুষ্ঠিত হয়।

মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সায়েদুর রহমান জানান, বয়াতি শরিয়ত সরকারের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। গ্রেফতারের পর ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে তাকে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।